লামায় ইউ.পি সদস্য ও সচিবের ৩টি মোটর সাইকেল চুরি

বান্দরবানের লামা উপজেলার একটি বাড়ি থেকে একরাতে তিনটি ডিসকভার ১২৫ মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার দিনগত গভীর রাতে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোছাইন মামুন, পরিষদের সচিব শহীদ হোছাইন ও প্রাথমিক শিক্ষক মো. আবদুল জলিলের বগাইছড়িস্থ বসতঘরে এই চুরির ঘটনা ঘটে। এক সঙ্গে তিন মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে মোটর সাইকেল মালিকদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

সূত্র জানায়, শনিবার দিনগত রাতের কোন এক সময় চোরেরা ঘরের পেছনের ভেন্ডিলেটর ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। পরে একে একে ঘরে রক্ষিত তিনটি মোটর সাইকেল নিয়ে যায়। যাহার নম্বর যথাক্রমে বান্দরবান হ-১১-১৬১৮, বান্দরবান হ-১১-১৮৫৬ ও বান্দরবান হ-১১-১৮৫৫। মোটর সাইকেল তিনটির মধ্যে একটির রং ঘাড় সবুজ, একটি হালকা সবুজ ও আরেকটি লাল। আজ রবিবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মো. হোসাইন মামুন ও তার ভাইয়েরা ঘুম থেকে ওঠে দেখেন মোটর সাইকেল তিনটি নেই। উল্লেখ্য, এর আগেও উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেল নিয়ে যায় চোরেরা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোহাম্মদ হোছাইন মামুন বলেন, মোটর সাইকেল তিনটির মধ্যে একটি আমার, একটি ছোট ভাই পরিষদের সচিব মো. শহীদ হোছাইন ও শিক্ষক আবদুল জলিলের। মোটর সাইকেল তিনটি নিয়ে যায়। চুরির ঘটনা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

এদিকে বেশ কয়েকজন মোটর সাইকেল মালিক বলেন, মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা শুনার পর আমরা আতংকে আছি। কখন চোরেরা আমাদের ব্যবহৃত মোটর সাইকেলও নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান বলেন, চুরির ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্তরা লিখিত অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
Loading...