লামায় করোনায় আক্রান্ত হলেন এক সিএইচসিপি

এবার বান্দরবানের লামা উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিকে দায়িত্বরত এক সিএইচসিপি’র নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পজেটিভ এসেছে, অর্থাৎ তার শরীরে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এ নিয়ে উপজেলায় মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৬ জনে। আজ (১৯ মে) মঙ্গলবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক মোহাম্মদ রোবীন।

তিনি জানান, গত ১০ মে উপজেলার সরই ইউনিয়নের বাইঘার দোকান কমিউনিটি ক্লিনিকের কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইসিপি) আবুল বশরের প্রচন্ড জ্বর ও মাথা ব্যাথা অনুভূত হয়। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদুল হকের পরামর্শে কাছাকাছি লোহাগাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবুল বশর নমুনা দেয়ার পর পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সোমবার দিনগত রাতে আবুল বশরের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে করোনা পজেটিভ আসে।

এদিকে রিপোর্ট পজেটিভ হলেও বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন। ১৪দিন পর পরীক্ষার জন্য পূণরায় তার নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এর আগে কোন ধরণের উপসর্গ ছাড়াই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদুল হক ও আয়া মততাজ বেগমের করোনা নমুনা পরীক্ষায় পজেটিভ আসে। বর্তমানে তারা উভয়ে সুস্থ ও হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন। ইতিমধ্যে লামা সদর ইউনিয়নের মেরাখোলা মুসলিম পাড়ায় আক্রান্ত রাশেদা বেগম ২৩দিন আইসোলেশনে থাকার পর সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেন এবং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের গয়ালমারা এলাকায় আক্রান্ত দুই জনের দ্বিতীয় নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ আসে বলে জানান স্বাস্থ্য পরিদর্শক মো. নাজিম উদ্দিন।

এ বিষযে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ- জান্নাত রুমি বলেন, করোনা সংক্রমন এড়াতে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার আবুল বশরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।