লামায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে নারীসহ ১২ জন আহত

বান্দরবানের লামা উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে নারীসহ ১২ জন আহত হয়েছেন।

উপজেলার লামা সদর ইউনিয়নের পোপা খালের মুখে আজ শুক্রবার (৫ মার্চ) সকালে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে গুরুতর আহতরা হলেন, বৈক্ষমঝিরি গ্রামের বাসিন্দা মো. আলীর মেয়ে শাবনুর আক্তার (১৮), ছেলে মো. রোমান (১৬) ও আবদুর শুক্কুর (৩২), মৃত কাদের আলীর ছেলে মো. মোস্তফা (৬০), দক্ষিণ মেউলারচরের বাসিন্দা দলিলুর রহমানের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন (৪০), বশির আহমদের ছেলে আবদুর শুক্কুর (১৮), বশির আহমদের ছেলে আবু সালাম (২৪), নুর হোসেনের স্ত্রী সিরাজ খাতুন (৭০), দলিলুর রহমানের ছেলে সিরাজুল ইসলাম রাসেল (২৫)। স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

সূত্র জানায়, জমি নিয়ে মো. আলী ও দলিলুর রহমান পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মেউলারচর থেকে মো. আলীর ছেলে আবদু শুক্কুর ভাড়ায় চালিত মাহিন্দ্রা গাড়ি যোগে কাছাকাছি অংহ্লাপাড়ায় যাচ্ছিলেন। এ সময় পোপা খালের মুখে পৌঁছলে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা দলিলুর রহমান ও বশির আহমদ জোর পূর্বক আবদু শুক্কুরের মাহিন্দ্রা গাড়ির চাবি কেড়ে নেয়। একই সময় আবদু শুক্কুরের মামা সদর ইউনিয়নের ইজারাদার নুর হোসেন প্রকাশ ভেন্ডী আর কোন পন্যের ইজারার টাকা উঠাতে পারবেনা বলেও হুমকি দেন দলিলুর রহমানসহ অন্যরা। এর নিয়ে কথা কাটা কাটির এক পর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ৩ নারীসহ ১২ জন আহত হন।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন পক্ষ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।