লামায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভেতরেই এক কর্মচারীর আত্মহত্যা

স্ত্রীর সাথে অভিমান করে বান্দরবানের লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওটিতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে এক কর্মচারী। ওয়ার্ড বয় হিসাবে কর্মরত এই কর্মচারীর নাম শাপলু মোহর (৩২)।

সূত্র জানায়, শাপলু মোহর ও তার স্ত্রী আঁখি দাশ লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওয়ার্ড বয় হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পারিবারিক বিষয় নিয়ে বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ৮টার দিকে পৌর এলাকার মধুঝিরিস্থ ভাড়া বাসায় স্ত্রী আঁখি দাশের সাথে শাপলু মোহরের কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরে অভিমান করে বাসা থেকে বের হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডিউটি করতে যায় শাপলু মোহর। এর পরপর স্ত্রী আঁখি দাশ শাপলু মোহরের মোবাইল ফোনে রিং দিলেও রিসিভ হয়নি। পরে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি নির্জন কক্ষে শাপলু মোহরের লাশ ঝুলতে দেখে পুলিশে খবর দেন চিকিৎসক ও কর্মচারীরা।

শাপলু মোহরের বেশ কয়েকজন সহকর্মী বলেন, পারিবারিক বিষয় নিয়ে শাপলু মোহর ও স্ত্রী আঁখি দাশের মধ্যে প্রায় ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকত। তাদের এ ঝগড়া বিবাদের কারণে কোয়ার্টার থেকে বের করে দেয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মো. মহি উদ্দিন মাজেদ চৌধুরী বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১১টার পর শাপলু মোহরকে পাওয়া যাচ্ছিলনা। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নতুন ভবনের একটি নির্জন কক্ষে শাপলু মোহরকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

এই ব্যাপারে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, শাপলু মোহরের লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সূরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।