লামায় ১২ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে তিনটি উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন করলেন বীর বাহাদুর

এক সময় বান্দরবান জেলার যেসব স্থানে রাস্তা, ঘাট, কালভার্ট, ব্রিজ, ফায়ার সার্ভিস, থানা ভবন, কলেজ, স্কুল, মাদ্রাসা, বাজার শেড, হাসপাতাল, মসজিদ, মন্দির, গীর্জা, বৌদ্ধ বিহার, স্কুল, মাদ্রাসা ও বিদ্যুৎ সংযোগ ছিলনা; গত কয়েক বছরে সেসব স্থানে সব ধরণের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বর্তমানেও জেলার বিভিন্ন উপজেলায় আরো কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ চলছে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে লামা উপজেলা তথা গোটা বান্দরবান একটি মডেল জেলায় পরিণত হবে।

আজ শনিবার (২৬অক্টোবর) বিকালে বান্দরবানের লামা উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে চলা মাতামুহুরী নদীর রাজবাড়ী মেরাখোলা পয়েন্টে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে প্রায় ৯ কোটি টাকা ব্যয়ে নব নির্মিত ব্রীজের উদ্বোধনকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এসব কথা বলেন।

লামা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেনের সভাপতিত্বে ব্রীজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি, পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম, বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য ফাতেমা পারুল, লক্ষীপদ দাশ ও মোজাম্মেল হক বাহাদুর, উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী ইয়াছিন আরাফাত, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. জাহেদ উদ্দিন ও মিল্কি রানী দাশ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাথোয়াইচিং মার্মা, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক বিজয় আইচ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে পার্বত্য মন্ত্রী শিলেরতুয়া মার্মা পাড়ায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত পাড়াকেন্দ্র উদ্ভোধন শেষে ৫৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত সরকারী মাতামুহুরী কলেজ মিলনায়তন উদ্বোধন করেন।

এরপর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্বাবধানে ৭৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নব নির্মিত লামা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন উদ্বোধন ও ২ কোটি ৪১ লাখ টাকা ব্যয়ে নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।