সবুজ চা পাতা প্রক্রিয়াজাতকরণে বান্দরবানে আধুনিক চা কারখানা

বান্দরবানের চা অর্গানিক চা এর ব্র্যান্ডিং হিসেবে সারাদেশের চাহিদা পুরণ করে বিদেশেও রপ্তানী করা সম্ভব হবে। সার ও কিটনাশক মুক্ত উন্নত জাতের চা সারাবিশ্বে ভাল কদর আছে। তাই অর্গানিক চা হিসেবে বান্দরবানের চা একটি ব্র্যান্ডিং। সবুজ চা পাতা প্রক্রিয়াজাতকরণে বান্দরবানে আধুনিক চা কারখানার উদ্বোধনকালে চা বোর্ড চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো: জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান পিএসসি একথা বলেন।

চা বোর্ডের সচিব কুল প্রদীপ চাকমা’র সভাপতিত্বে অয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো: জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান পিএসসি।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বান্দরবান ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খন্দকার মোহাম্মদ শাহিদুল এমরান পিএসসি, বিজিবি’র সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মোঃ জহিরুল ইসলাম খান, চা বোর্ডের সদস্য ইরফান শরিফ, কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ পরিচালক ড. এ কে এম নাজমুল হক, বান্দরবান চা বোর্ডের প্রকল্প কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ আমীর হোসেন, বান্দরবান চা বাগান মালিক সমিতির সভাপতি মংক্য চিং চৌধুরী, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরীসহ চা বোর্ডের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও চা চাষীরা উপস্থিত ছিলেন।

গত মঙ্গলবার সদর উপজেলার সুয়ালক এলাকায় ৪ কোটি ৫৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে স্থাপিত বান্দরবানে প্রথম চা কারখানার উদ্বোধনী করা হয়। এই কারখানায় প্রতি ঘন্টায় ১৮০ থেকে ২০০ কেজি চা উৎপাদন করা সম্ভব। কাচাঁমাল সরবরাহের উপর নির্ভর করে প্রতিদিন কতঘন্টা মিল চালু থাকবে তার উপর নির্ভর করে উৎপাদন হবে। বান্দরবানে ৩’শ হেক্টর জমিতে চা চাষের উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও বর্তমানে মাত্র ৭০ হেক্টর জমিতে চায়ের আবাদ হচ্ছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।