আলীকদমে ২৫ জন নারীকে গরুর বাছুর প্রদান করলো জেলা পরিষদ

বান্দরবানের আলীকদমের স্বামী হারা বিধবা, অস্বচ্ছল ও দরিদ্র ২৫ জন নারীকে দেওয়া হল গরুর বাছুর। পাশাপাশি উপজেলার দুইটি কৃষক সমবায় সমিতিকে দেওয়া হয়েছে দুইটি পাওয়ার টিলার।

আজ সোমবার (২৭ জুন) সকাল ১২ টায় জেলা পরিষদের অর্থায়নে রেষ্ট হাউসে এ সহায়তা দেওয়া হয়। জেলা পরিষদের সদস্য দুংড়িমং মার্মার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ক্যসাপ্রু। আলীকদম সদর ইউপি চেয়ারম্যানের সঞ্চালনায় জেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম, জেলা প্রার্ণী সম্পদ কর্মকর্তা পলাশ কান্তি চাকমা, জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জিয়াউল রহমান উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি ক্যসাপ্রু বলেন, অসহায় ও বিধবা নারীদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে এই গরুর বাছুর বিতরণ করা হয়েছে। এই পরিবারের গুলোর আর্থিক স্বচ্ছলতার সাথে সাথে জীবিকার পথ তৈরি হবে।
তিনি আরও বলেন, আপনারা গরুর বাছুর গুলো বিক্রি করবেন না। এগুলো একদিন আপনার ও আপনার পরিবারের অর্থনৈতিক সচ্ছলতা আনবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি দুংড়িমং মার্মা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী গরুর বাছুর বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। আমরা মন্ত্রীর প্রতিনিধি হয়ে এগুলো আপনাদের কাছে পৌছে দিতে এসেছি। আপনারা বান্দরবান গিয়ে এগুলো আনা অনেক ব্যয় সাপেক্ষ। তাই মন্ত্রীর নির্দেশে এখানে নিয়ে এসেছি। জেলায় শুধু আপনারাই এ বাছুর গুলো পেয়েছেন। পর্যায় ক্রমে সকল ওয়ার্ডের বিধবা ও অসহায় নারীরা এ সহায়তা পাবেন। এক টাকা ছাড়া এ বাছুর দেওয়া হচ্ছে। তাই আপনারা এগুলোকে নিজের স্বনির্ভর হিসেবে গড়ে তুলতে কাজে লাগাবেন।

গরুর বাছুর পেয়ে কুলছুমা বেগন বলেন, স্বামী নেই সন্তান নিয়ে চলতে খুবই কষ্ট। মানুষের কৃষি জমিতে কাজ করে যা পায় তা দিয়ে নিজের খাবার জোগাড় করতে কষ্টকর। স্বচ্ছলতার জন্য একটি গরু কিনতে চেয়েছিলাম কিন্তু পারিনি। গরুর বাছুর পেয়ে আনন্দিত। নিজের স্বচ্ছলতা আনতে সহায়ক হবে বাছুরটি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।