কাপ্তাইয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতিসহ আহত ৩

রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার ২ নং রাইখালী ইউনিয়নের ডলুছড়ি এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় রাইখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বিপ্লব সেন লাতুসহ আরোও ২ জন গুরুতর আহত হয়েছে।

আহত অন্যন্যারা হলেন, ইউনিয়ন যুবলীগ কর্মী মোঃ তৌহিদুল ইসলাম তপু(২৭) এবং নৌকার মাঝি অবিনাশ দাশ(৪৫)। তারা সকলেই রাইখালী ইউনিয়ন এর নারানগিরির বাসিন্দা।

গত বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত ১১ টায় এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে যুবলীগ কর্মী তৌহিদুল ইসলাম তপুর আঘাত গুরতর হওয়ায় তাকে প্রথমে উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে পরে রাতে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। আহত যুবলীগ সভাপতি বিপ্লব সেন লাতু এবং নৌকার মাঝি অবিনাশ দাশ বর্তমানে উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

উপজেলা হাসপাতাল এর চিকিৎসকরা জানান, আহত ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বিপ্লব সেন লাতুর মাথায় ৩ টি সেলাই করা হয়েছে।

আহত যুবলীগ সভাপতি বিপ্লব সেন লাতু জানান, তিনিসহ আরোও ২ জন গত (বুধবার) রাত ১০ টায় সাংগঠনিক কাজে রাইখালীর ডলুছড়ির আলু মং মারমার বাড়ীতে অবস্থান করছিলেন। এর পর তারা রাত ১১ টায় ঘর থেকে বের হবার সাথে সাথে অজ্ঞাত নামা ৫/৬ জন পাহাড়ী সন্ত্রাসী অতর্কিত ভাবে হামলা করেন এবং বড় বড় লাঠি দিয়ে তাদের আঘাত করেন। এসময় তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যান। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ ছিদ্দিকীর সহায়তায় তাদেরকে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান।

এদিকে এই বিষয়ে চন্দ্রঘোনা থানার ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, তিনি বিষয়টি জেনেছেন, তবে এই বিষয়ে কেউ এখনো থানায় মামলা করেননি। কেউ যদি মামলা করেন তাহলে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী জানান, অস্ত্রধারী জে এস এস এর সন্ত্রাসীরা এই হামলা করেছে। তিনি আরো জানান, এই অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার না করলে ভবিষ্যৎতে পার্বত্য চট্টগ্রামে জাতীয় রাজনীতির অস্তিত্ব থাকবে না।

রাইখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুইসাপ্রু মারমা, সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ কার্বারী জানান, জেএসএসের অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা এই হামলার সাথে জড়িত।

এদিকে আহতদের দেখতে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা হাসপাতালে ভীড় করেন।
স্হানীয় নেতাকর্মীরা জানান, বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ এবং জেএসএস প্রার্থীদের স্থানীয় সমর্থকদের মধ্যে পক্ষ-বিপক্ষ নিয়ে দ্বন্দের জের ধরে এই সন্ত্রাসী হামলা ঘটে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।