কাপ্তাই লেকে পানি বাড়ার কারনে বেড়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদন

চলতি সপ্তাহ জুড়ে কাপ্তাই সহ রাঙামাটির বিভিন্ন অঞ্চলে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়েছে। ফলে কাপ্তাই লেকের পানি পরিমানও বৃদ্ধি পেয়েছে। লেকের পানির বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে কাপ্তাই কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫ টি ইউনিট এর মধ্যে ৪টি ইউনিট দিয়ে বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদন সচল রয়েছে। এই ৪টি ইউনিট থেকে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় ১৬৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদিত বিদ্যুতের পুরোটাই জাতীয় গ্রীডে সঞ্চালন করা হচ্ছে। কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এ টি এম আব্দুজ্জাহের বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টায় টেলিফোনে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আপাতত ২ নম্বর ইউনিটটি বন্ধ রয়েছে। সেটি চালু করা সম্ভব হলে আরো ৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে বলেও তিনি জানান।

জানা গেছে,আজ বৃহস্পতিবার ১ নম্বর ইউনিট হতে ৪৪ মেগাওয়াট, ৩ নম্বর ইউনিট থেকে ৪৭ মেগাওয়াট, ৪ নম্বর ইউনিট থেকে ৪০ মেগাওয়াট এবং ৫ নম্বর ইউনিট থেকে ৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়েছে।

হ্রদে রুলকার্ভ (পানির পরিমাপ) অনুযায়ী পানি থাকার কথা ১০৯.০ ফুট মীন সী লেভেল (এম এস এল)। কিন্তু হ্রদে এখন পানি রয়েছে(২৩ সেপ্টেম্বর, সকাল ৯ টা পর্যন্ত) ১০৬.৬৭ ফুট মীন সী লেভেল (এম এস এল)। অর্থাৎ নিদিষ্ট পরিমাপের চেয়ে কাপ্তাই হ্রদে এখন প্রায় ৪ ফুট পানি কম রয়েছে।

পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক জানান,অব্যাহত ভারী বৃষ্টি, পাহাড়ি ঢল এবং উজান থেকে পানির ধারা নেমে আসায় কাপ্তাই হ্রদে পানির উচ্চতা এই মুহুর্তে বৃদ্ধি পাচ্ছে, যদি পানির লেভেল ১০৭ ফুট মীনস সী লেভেল অতিক্রম করে তাহলে এই কেন্দ্রের স্পিল ওয়ের গেইট খুলে পাশ্ববর্তী কর্ণফুলি নদীতে পানি ফেলে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।