থানছি নয়, লিখতে হবে “থানচি”

বান্দরবান জেলার উপজেলা হিসাবে থানচি’কে থানছি লেখার কারনে ভুল সংশোধনের এর জন্য উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো: আরিফুল হক মৃদুল স্বাক্ষরীত একটি চিঠি উপজেলার সকল সরকারি/বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ প্রেসক্লাব এবং আইন শংখলা বাহিনীকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসন গত ১৭ অক্টোবর এক পত্রে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো: আরিফুল হক মৃদুল স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে। ইদানিং লক্ষ্য করা যাচ্ছে,বিভিন্ন সরকারি/বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অফিসিয়াল যোগাযোগের ক্ষেত্র কিছু কিছু সরকারি/বেসরকারি প্রতিষ্ঠান উপজেলার নাম “থানচি” এর পরিবর্তে “থানছি” ব্যবহার করছে । ফলে সরকারি/বেসরকারি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে পত্রালাপে বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। সরকারি গেজেট অনুসারে উপজেলা নাম “থানচি”

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের গেজেট নোটিফিকেশন অনুসারে সকল ক্ষেত্রে উপজেলার সঠিক নাম ব্যবহারের যে সকল সংযোজন ভূল বানান উপজেলার নাম মুদ্রিত বা লিখিত হয়েছে তা অতিদ্রুত সংশোধনের জন্য অনুরাধ করা হয়েছে চিঠিতে। আজ মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কার্যালয়ের জারিকারক উক্যসিং মারমা চিঠিগুলি সকল প্রতিষ্ঠানের পাঠান।

এদিকে স্বাধীনতার আগে বা পরে ১৯৭১ সাল থেকে থানচি উপজেলার যে সকল ভূমি /জমি পাহাড়ীদের নামের পরে ঠিকানা ছিল থানচিকে “থানছি” বলে লেখা হয়েছে। সরকারিভাবে অনুমোদন পাওয়ার জমির বন্দোবস্তী, নাম জারী হয়েছিল তাহাতে সম্পূর্ণভাবে “থানছি” শব্দটি ব্যবহৃত হয়েছে । সেটি কিভাবে পরিবর্তন করা হবে এক্ষেত্রে স্থানীয়দের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

উপজেলায় বসবাসরত সাধারণ জনগন বা ব্যবসায়ীরা “থানচি” উপজেলার নামকে “থানছি” হিসেবে ব্যবহার করে আসছিল বলে স্থানীয়রা অভিমত ব্যক্ত করেছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।