নাইক্ষ্যংছড়িতে অফিস সহায়ক’কে পিটালেন শিক্ষা অফিসার!

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে এক অফিস সহায়ক’কে পিটানোর অভিযোগ উঠেছে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু আহম্মদ এর বিরুদ্ধে। রোববার সকালে জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহায়ক (পিয়ন) মো: মাহমুদুল হাসান (২৪) কে অফিসের কাজকর্ম না করার অজুহাতে চর থাপ্পর মারেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু আহম্মদ। মারধরের পর গলা ধাক্কা দিয়ে অফিস থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ করেন ভুক্তোভোগি।
অফিস সহায়ক মো: মাহমুদুল হাসান বলেন, শিক্ষা সপ্তাহ অনুষ্ঠানের কাজ করার সময় স্যার ডাক দিয়ে জানতে চায় কি করছি। স্যারকে চিঠি দিচ্ছি জবাব দেওয়ার সাথে সাথে স্যার বলেন কুত্তার বাচ্চা চিঠি রাখ, ব্যানার লাগা বলে আমায় চর থাপ্পর মারে। এক পর্যায়ে গলা ধাক্কা দিয়ে অফিস থেকে বের করে দেয়।
এঘটনার পর নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি আবুল কালাম বলেন, কর্মচারীর কোনো আচরণে অসন্তোষজনক হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন, লিখিতভাবে কর্মচারীকে জানাতে হবে এবং তাকে তার স্বপক্ষে মতামত দেয়ার সুযোগ দিতে হবে। কিন্তু কোথাও লেখা নেই কর্মচারীকে শারীরিকভাবে আঘাত করতে পারবেন। তিনি আরো বলেন, আমরা লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি সোমবার জানাবো।
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু আহম্মদ জানান, ঠিকমতো কাজকর্ম না করার কারনে অফিসের প্রধান হিসেবে আমি বকাবকি করেছি,তাকে মারধর করিনি। এদিকে এই ঘটনার তদন্ত্র সাপেক্ষে সুষ্ঠ বিচার না হলে পরবর্তী কর্মসূচী গ্রহণ করবে বলে জানান নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের নেতারা।
প্রসঙ্গত, ২০১৩ সাল থেকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হিসেবে দায়িত্বরত আবু আহম্মদ। এই শিক্ষা অফিসারের বিরুদ্ধে কর্মস্থলে উপস্থিত না থাকা এবং শিক্ষকদের কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে উৎকোচ গ্রহনসহ একাধিক অভিযোগও রয়েছে।

আরও পড়ুন
3 মন্তব্য
  1. Jannatul Islam Nisha বলেছেন

    ঘটনাটি সত্য কিনা তা সঠিক তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

  2. Rj Joy বলেছেন

    অফিস সহায়কের নাম টা জানতে পারি?

  3. Goaliakhola Sesdp Mhs বলেছেন

    খুবই দুক্ষ জনক

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।