নাইক্ষ্যংছড়িতে দুই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার

বান্দরবান জেলা যুবলীগের নির্দেশে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার আওতাধীন দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগের দুই নেতাকে বহিষ্কার করেছে উপজেলা যুবলীগ।

শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকালে উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আলী হোসেন বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গত বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বার) উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ সভাপতি মুহাম্মদ জসিম উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আলী হোসেন এর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পৃথকভাবে এই তথ্যে জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ একটি ঐতিহ্যবাহী সুশৃঙ্খল সংগঠন।এই সংগঠনের ভাবমূর্তি বজায় রাখা আমাদের সবার নৈতিক এবং সাংগঠনিক দায়িত্ব। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার আওতাধীন ৪নং দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মুহাম্মদ শামশুল আলম এবং ১নং সহ-সভাপতি মুহাম্মদ ফোরকান আপনারা ২য় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো,ইমরান এর বিরুদ্ধে প্রচার-প্রচারনা সুস্পষ্ট প্রমাণিত হওয়ায় “বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ গঠনতন্ত্রের ২২(ক) ধারায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করার দায়ে সংগঠনের শৃঙ্খলা লংঘিত ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে” ।

অতএব, গঠনতন্ত্রের আলোকে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ জেলা শাখার নির্দেশে উপজেলার ৪নং দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি ও ১নং সহ-সভাপতিকে যুবলীগ সংগঠন থেকে অব্যহতি প্রদান করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে এই পৃথক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে।

এতে পৃথকভাবে প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে উক্ত সভাপতি ও ১নং সহ-সভাপতিকে অব্যহতিপত্রের মাধ্যমে বহিষ্কার করায় পরর্বতী সম্মেলনের মাধ্যমে কাউন্সিল না হওয়া পর্যন্ত দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ সংগঠনের ৩নং সহ-সভাপতিকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে বলে জানাযায়।

বহিষ্কৃতরা হলো- দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মুহাম্মদ শামশুল আলম,১নং সহ-সভাপতি মুহাম্মদ ফোরকান।

আর এদিকে উপজেলার দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ ৩নং সহ-সভাপতি মুহাম্মদ হামিদুল ইসলামকে বহিস্কৃত সভাপতির স্থলে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মুহাম্মদ জসিম উদ্দীন এই প্রতিবেদককে বলেন, ২য় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বান্দরবান জেলা ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা মার্কার প্রার্থী মো, ইমরানের বিরুদ্ধে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা অভিযোগ ছিল।
জেলা ও উপজেলা যুবলীগ তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় সভাপতি ও ১নং সহ-সভাপতিকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। বহিস্কৃত সভাপতি পদের স্থলে দৌছড়ি ইউনিয়ন যুবলীগ সংগঠনের ৩নং সহ-সভাপতি মুহাম্মদ হামিদুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে অব্যাহতিপ্রাপ্ত দুই নেতার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।