বান্দরবানের প্রথম করোনা রোগী সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরলেন

করোনা শনাক্তের ১০ দিন পর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরলেন বান্দরবান জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু এলাকার বৃদ্ধ আবু ছিদ্দিক। আজ রবিবার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিট থেকে এ্যাম্বুলেন্সে করে নিজ বাড়ি পাঠানোর ব্যবস্থা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, করোনা পজেটিভ সনাক্ত বৃদ্ধ আবু ছিদ্দিক ঢাকা থেকে তবলীগ ফেরত হয়েছিল গত ৬ এপ্রিল। উপজেলা প্রশাসন খবর পাওয়ার সাথে সাথে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেন তাকে। গত ১৫ এপ্রিল নমুনা সংগ্রহ করে তাঁর। সেই নমুনার রিপোর্টে পজেটিভ আসে ১৬ এপ্রিল।

ওই দিন তাকে হোম কোয়ারেন্টিনে রেখে মোবাইলের মাধ্যমে চিকিৎসা দিলেও একদিন পর তাকে রাখা হয় সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে। দায়িত্বরত চিকিৎসকেরা ন্যাশনাল গাইড লাইন অনুযায়ী চিকিৎসা দেন এবং আইসোলেশন থেকে আজ (২৬ এপ্রিল) রবিবার সে সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেন। এর আগে আইসোলেশনে এক সপ্তাহ ধরে অবস্থান করার পর গত ২৩ এপ্রিল কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে পাঠানো হয় তার দ্বিতীয় বারের নমুনা। ওই নমুনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে ২৪ এপ্রিল।

আরো জানা গেছে, ওই রোগীসহ হাসপাতালের সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক ও আইসোলেশন ওয়ার্ড বয়ের নমুনা সংগ্রহ করে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয় ২৫ এপ্রিল।

এদিকে, ২৬ এপ্রিল রবিবার বিকেলে তৃতীয় বারের রিপোর্টটিও করোনা নেগেটিভ
পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা (ইউ,এইচ,এফ,পি, ও) ডা: আবু জাফর মো, ছলিম বলেন, করোনা পজেটিভ পাওয়া রোগী আবু ছিদ্দিকের দুই দফা টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট আসায় তাঁকে আমরা সুস্থ বলতে পারছি।

তিনি আরো বলেন, ন্যাশনাল গাইড লাইনের নিয়ম অনুযায়ী তিনি ঘরে গিয়ে আবারও ৭ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পর ওই সাত দিনের মাথায় চতুর্থ বারের নমুনা সংগ্রহ করে রিপোর্ট নেগেটিভ আসলে তাকে চুড়ান্ত ভাবে দাবী করা যাবে রোগী পুরোদমে সুস্থ। তখন সে সমাজে চলাফেরা করতে আর কোন বাঁধা থাকবে না।

উল্লেখ্য,ঢাকা তবলীগ ফেরত আবু ছিদ্দিক (৫৯) নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু এলাকার কোলালপাড়াস্থ কোনাপাড়া বাসিন্দা। তিনি নমুনা টেস্টে পজেটিভ হওয়ার পর এলাকার ৩৬ পরিবারকে লকডাউনে রাখা হয়। তার স্ত্রীসহ সংস্পর্শ ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়, তাতে সবাই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।