আলীকদমে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক আটক

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় এক কিশোরীকে (১৩) ধর্ষণের অভিযোগের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটক যুবকের নাম হলো মোঃ নুর ইসলাম (২৮), নুর ইসলাম মকবুল হোসেন সর্দার পাড়ার বাসিন্দা মৃত মোঃ ইব্রাহিমের ছোট ছেলে। এ ঘটনায় গত বুধবার নির্যাতিত কিশোরীর বাবা নিজে বাদী হয়ে আলীকদম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর প্রেক্ষিতে উক্ত যুবককে আটক করে পুলিশ।

নির্যাতিত কিশোরীর বাবার অভিযোগের সূত্রে পুলিশ জানায়, গত ঈদ-উল-ফিতরের দিন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অভিযুক্ত নুর ইসলাম কিশোরীকে কক্সবাজার নিয়ে গিয়ে ৫ দিন আটকে রেখে ধর্ষন করে এবং কিশোরীকে রেখে নুর ইসলাম পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় কিশোরী পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে,কিশোরীর বাবা ক´বাজার থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় বাড়ীতে নিয়ে আসেন।

পরবর্তীতে গত ২ জুলাই আবারও কিশোরীকে ফুসলিয়ে পটিয়া মোজ্জারটেক নামক এলাকায় নিয়ে যান এবং সেখানে ১৫ দিন বিয়ের প্রলোভনে দেখি ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত নুর ইসলাম। অভিযুক্ত নুর ইসলাম কিশোরীকে বিয়ে করতে অনাগ্রহ ও নানা তালবাহনা করছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানায় যায়।

এদিকে অভিযুক্ত নুর ইসলামের বড় ভাই রশিদ আহম্মদ বলেন, তার ভাইকে কিশোরীর পরিবার কারও কথায় ফাসাচ্ছেন এবং তার ছোট ভাই ঈদ-উল-ফিতর থেকে আটক হওয়ার আগ পর্যন্ত বাড়ীতে ছিলেন বলে জানান। কিশোরীর বা কিশোরীর পরিবার কখনোও তার অভিযুক্ত ভাইয়ের বিষয়ে কিছু জানান নি বলে জানান।
কিশোরীর বাবা অভিযোগের বাাদীর সাথে আলীকদমের বাইরে থাকায় কথা সম্ভব হয়নি। কিশোরী মা জাহানারা বেগম বলেন,আমার অবুঝ ও ছোট মেয়েটার সাথে এমন ঘটনার জন্য নুর ইসলামের কঠোর শাস্তি কামনা করছি।

পান বাজার ব্যবসায়ীর দুয়েকজন সাথে কথা বললে,তারা জানান, প্রায় কিশোরীর শাঁক সবজি বিক্রি করতে আসলে সাথে তার সাথে নুর ইসলামকে কথা বলতে দেখেছে।
আলীকদম থানা অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) রফিক উল্লাহ বলেন,আটক নুর ইসলামের বিরুদ্ধে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন ৭/৯ এর ১ ধারায় মামলা করা হয়েছে,বর্তমানে আটক নুর ইসলামকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
Loading...