বান্দরবান হাসপাতাল করোনার সেবা দিতে প্রস্তুত : সিভিল সার্জন ডাঃ অং সুই প্রু

সারাদেশের করোনার মহামারির মধ্যেও মনোবল হারায়নি, ১০০ শয্যা বান্দরবান সদর হাসপাতালে আমাদের মনোবল দৃঢ় রয়েছে, করোনা ভাইরাস টেষ্ট এর সাথে সাথে রেজাল্ট এর ব্যবস্থা, ভ্যাকসিন মজুদ, পর্যাপ্ত পরিমান অক্সিজেন ব্যবস্থা, করোনা রোগীদের খাওয়ানো, পর্যাপ্ত পরিমানে গ্লাভস্, মাস্ক, স্যানিটাইজার, হাত ধোয়া, জরুরী রোগীদের রেফার হলে এ্যাম্বুল্যান্স ব্যবস্থাসহ করোনা রোগীসহ যাবতীয় রোগী সেবা দিতে বর্তমানে বান্দরবানের সদর হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে।

আজ (৭ জুলাই) বুধবার সকালে পাহাড়বার্তা’র সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন, জেলার সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মার্মা। সাক্ষাতকার নিয়েছেন পাহাড়বার্তা’র প্রতিনিধি রিজভী রাহাত।

তিনি বলেন, ২০২০ সালে লকডাউনে সময় করোনা টেষ্ট করেও অনেক দেরিতে রেজাল্ট আসতো, সুতরাং করোনা পজেটিভ রোগীরা ঘুরাফেরা করতো। কিন্তু চলতি বছরে করোনা টেষ্ট রেজাল্ট আমরা সাথে সাথে দিতে পারবো, যার রেজাল্ট পজেটিভ, তাঁকে আইসোলেশানে রেখে চিকিৎসা সেবা দিতে পারবো।

তিনি পাহাড়বার্তাকে আরো বলেন, আমাদের রয়েছে অক্সিজেন ব্যবস্থা, ভ্যাকসিন (করোনা টিকা) পর্যাপ্ত পরিমানে রয়েছে, প্রতিদিন সরকারের নির্দেশ অনুসারে ভ্যাকসিন ইনজেকশন সেবা দিয়ে যাচ্ছি।

স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, এ পর্যন্ত বান্দরবানে ৭ হাজার ৬ শত ৬৫জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, তার মধ্যে ৭ হাজার ৩০জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া গেছে, এদের মধ্যে ১হাজার ১শত ১৭জনের দেহে করোনা সনাক্ত হয়েছে এবং ১০৪৯ জন করোনার চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়েছে।

আরো জানা যায়, বান্দরবানে এই পর্যন্ত ১৮ হাজার ৫৮ জন করোনার প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে এবং ১৬ হাজার ১শ ২১জন ২য় ডোজ গ্রহণ করেছে আর সবাই সুস্থ রয়েছে।

বান্দরবানের সিভিল সার্জন ডাঃ অং সুই প্রু মারমা আরো বলেন, সরকার ফের কঠোর লকডাউন ঘোষনা দিয়েছে, আমাদের জেলার সকল কর্মকর্তা কর্মচারী পূর্ণ সমর্থন করি এবং বর্তমানে অবস্থানরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ছুটিতে না গিয়ে, শুধুমাত্র সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে অত্র জেলার সকল নাগরিকের জন্য এবং করোনা রোগীদের সেবা দিয়ে যাব।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।